শনিবার, মার্চ ২জাতির কথা বলে
Shadow

পঁচিশের আগে বিয়ে করলেই নগদ অর্থ পুরস্কার

চীনে শিশু জন্মদানে উৎসাহিত করতে নানা ধরনের প্রণোদনা দেওয়া হচ্ছে। এর কারণ জন্মহার আশঙ্কাজনক হারে কমে যাচ্ছে। বিগত ৬০ বছরের ইতিহাসে এই প্রথম চীনের জনসংখ্যার হার কমেছে। ফলে বয়স্ক লোকজনের সংখ্যা বাড়ছে।
বয়স ২৫ হওয়ার আগেই বিয়ে করলে চীনা তরুণীরা পাবেন নগদ অর্থ পুরস্কার। চীনের ঝেজিয়াং প্রদেশের চ্যাংশান কাউন্টি এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে। সেই প্রণোদনার একটি রূপ হলো নগদ অর্থ পুরস্কার।
বার্তা সংস্থা রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে- চ্যাংশান কাউন্টির যেসব তরুণী ২৫ বছর হওয়ার আগেই বিয়ে করবেন, তাদের চীনা মুদ্রায় ১০০০ ইউয়ান নগদ পুরস্কার দেওয়া হবে। চ্যাংশান কাউন্টি অফিস এরই মধ্যে একটি বিজ্ঞপ্তিও প্রকাশ করেছে।
চ্যাংশান কাউন্টির নিজস্ব উইচ্যাট অ্যাকাউন্টে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে। সেখানে বলা হয়েছে, মূলত যথাসময়ে বিয়ে এবং দ্রুত সন্তান নেওয়াকে উৎসাহিত করতে এ পুরস্কারের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। বিজ্ঞপ্তিতে যাদের এরই মধ্যে সন্তান রয়েছে, তাদেরও প্রণোদনা দেওয়া হবে।
এ অবস্থায় দেশটির তরুণ সমাজকে বেশি বেশি সন্তান জন্মদানে উৎসাহিত করতে সরকারের পক্ষ থেকে নানা উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে। তবে দেশটিতে বিয়ে, পরিবার পরিচালনা এবং সন্তান লালন-পালনে খরচ অনেক বেশি হওয়ায় তরুণদের মধ্যে বিয়ের প্রতি অনাগ্রহ বাড়ছে।
চীনের আইন অনুসারে ছেলেরা ২২ এবং নারীদের ক্ষেত্র ২০ বছর হলেই বিয়ে করতে পারবেন; কিন্তু বিগত কয়েক বছর ধরে দেখা যাচ্ছে, দেশটিতে বিয়ের প্রবণতা ক্রমেই কমছে, যার ফলে দেশটির জনসংখ্যা বৃদ্ধির হার কোনোভাবেই বাড়ানো যাচ্ছে না।
চীন সরকারের দেওয়া তথ্যানুসারে, দেশটিতে ১৯৮৬ সালের পর সবচেয়ে কম বিয়ে হয়েছে ২০২২ সালে। সেই বছর চীনে মাত্র ৬৮ লাখ বিয়ে হয়েছে, যা আগের বছর অর্থাৎ ২০২১ সালের তুলনায় ৮ লাখ কম।
বিয়ে কমে যাওয়ার প্রভাব পড়েছে দেশটির জনসংখ্যা বৃদ্ধির হারের ওপরও। ২০২২ সালে দেশটিতে জনসংখ্যা বৃদ্ধির হার ছিল সবচেয়ে কম ১ দশমিক ০৯ শতাংশ।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *